fbpx

অ্যাকুরিয়ামের মাছের বিকল্প খাবার !

আমরা অনেকেই আমাদের অ্যাকুরিয়ামের মাছদের বাজার থেকে কিনে আনা ফিশফুড খাইয়ে থাকি। তবে বাস্তবতা হল মাছের স্বাস্থ্যবৃদ্ধি  ও ভাল কালারের  জন্য  বাজারের খাবারের পাশাপাশি ন্যাচারাল কিছু খাবার খাওয়াতে হবে। এখন ন্যাচারাল খাবার দিতে হলে আগে বিবেচনায় আনতে হবে আপনি ঠিক কোন জাতের মাছের জন্য ন্যাচারাল  খাবারের জন্য ভাবছেন ? এটিকে আসলে মূলত দুইটি ভাগে ভাগ করা যায়। গোল্ডফিশ, কইকার্প, সিকলিড, শার্কের জন্য : এ সকল মাছের মাউথ সাইজ একটু বড়। প্রায় অনেক খাবারই এদের মুখে ফিট করবে। সে কথা বিবেচনা করে এদের জন্য নীচের খাবারগুলি আপনি দিতে পারেন।

কেঁচো বা আর্থ ওয়ার্ম :

মাটিতে জন্মানো কেঁচো মাছের জন্য একটি  অত্যন্ত  পুষ্টিকর খাদ্য। এটি লাইভ ফুড হিসাবে দারুণ। বরং অ্যাকুয়ারিয়াম স্টোরে যে “”পোকা”” নামের আড়ালে ড্রেনে জন্মানো টিউবিফেক্স ওয়ার্ম বিক্রি করা হয় তাদের থেকে হাজারগুণে ভাল এই কেঁচো। প্রচণ্ড নোংরা থেকে সংগ্রহ করা এইসব টিউবিফেক্স ওয়ার্ম মাছের রোগ রোগ ব্যাধির জন্য দায়ী ইন্টারনাল প্যারাসাইট সরাসরি  বহন করে। এদের ট্যাঙ্কে এনে ঢুকালে মাছের সরাসরি ক্ষতি হয়। মাছ মারা যায়। কাজেই লাইভ ফুড হিসাবে এই টিউবিফেক্স ওয়ার্ম  ব্যাবহার না করে আমরা কেঁচো বিবেচনা করতে পারি।

 

   

লেটুস পাতা :

লেটুস পাতা মাছের জন্য একটি দারুণ খাবার। মাছের পুষ্টি বৃদ্ধির জন্য দারুণ ফুড এটি। পরিস্কার পানিতে ভাল করে ধুয়ে সরাসরি ট্যাঙ্কে দিয়ে দিতে পারেন যাতে এতে কোন রকম ধুলাবালি না থাকে।  

 

 

 

বাঁধাকপি :

গোল্ডফিশ ও কইকার্পের জন্য সপ্তাহে একদিন বাঁধাকপির মত খাদ্য দেওয়া বাধ্যতামূলক। তবে অবশ্যই সিদ্ধ করে দিতে হবে।  

 

 

 

 

ভাত :

সিদ্ধ করা চাউল অর্থাৎ ভাত কিন্তু সকল গোল্ডফিশ, কই , সিকলিড বেশ আগ্রহ করে খায়। এদের অতি সতর্কতার সাথে ভাত দিতে পারেন। তবে অবশ্যই পরিমিত  পরিমানে। ট্যাঙ্কে বেশী ভাত দিলে সেটা যেমন ওয়াটার কন্ডিশন খারাপ করে ফেলবে তেমনি মাছের সরাসরি বিভিন্ন রোগব্যাধি ডেকে নিয়ে আসবে।

 

 

বিভিন্ন লাইভবিয়ারার, টেট্রা,  জেব্রা ও অন্যান্য ছোট মাছের জন্য 

লাইভ বিয়ারার ( গাপ্পি, প্লাটি, মলি ), টেট্রা ,  জেব্রা ও অন্যান্য ছোট মাছের জন্য বিকল্প কিছু খাবার আছে। তবে এগুলি ফিশ ফুডের বিকল্প হিসাবে দিতে পারেন। নিয়মিত দেবার কোন দরকার নাই। ১। পরিমান মত মুড়ি গুঁড়ো করে দিতে পারেন । তবে বেশী দেওয়া যাবে না। ওয়াটার কন্ডিশন নস্ট হবে এবং মাছের অসুখ করতে পারে। ২। বিস্কুটের গুঁড়ো দিতে পারেন। সবচে ভাল হয় টোস্ট বিস্কিটের গুঁড়ো। তবে এক্ষেত্রেও ঐ একই কথা প্রযোজ্য। বেশী দেওয়া যাবে না। ৩। এদেরকেও কেঁচো বা আর্থ ওয়ার্ম দিতে পারেন। তো এই হল মাছের জন্য পুষ্টিদায়ক বিকল্প খাবার । কখনো বাজারের খাদ্য হাতের কাছে না থাকলে যেমন এগুলি দিতে পারেন তেমনি পুষ্টিবর্ধক হিসাবে গোল্ডফিশ, কই কার্প , সিকলিড ও শার্কের জন্য নিয়মিত বিকল্প খাবারগুলি দিতে পারেন।

যোগ দিন আমাদের ফেসবুক পেইজে

আরো পড়ুন

আসুন তৈরি করি একটি বেট্টা ট্যাঙ্ক !

মাত্র ২৫০০ টাকায় তৈরি করুন আপনার প্রথম লো টেক প্ল্যান্টেড টেক !

হব ফিল্টার : বেস্ট ফিল্টার ফর বিগিনার্স

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *